Category Archives: উত্তর-আধুনিক রূপকথা

লাবিয়ার মাকড়ি : মলয় রায়চৌধুরী

           চিনেবাদামের খোসার রঙের দশতলা আদালত-বাড়িটা  ঘন পাইন জঙ্গলের ভেতরে, যেখানে আসতে হলে সোঁদা গন্ধের সুড়ঙ্গ বেয়ে পায়ে হেঁটে আসতে হয়, হাজার হাজার লোক দুশো ছেচল্লিশ বছর যাবত এই পথে চলে চলে বর্ষার পরেও চোরকাঁটা গজাতে দেয় না, জঙ্গলের ভেতরে … বিস্তারিত পড়ুন

Posted in উত্তর-আধুনিক রূপকথা, ছন্নছাড়া সময়ের গল্প | Tagged , , | এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান

খাওয়াশেকল : মলয় রায়চৌধুরী

খাওয়াশেকল কেষ্টর বাবা মারা যাবার পর থেকেই আমায় এই রোগে ধরেছে, আমি নিজে একে রোগ মনে করিনা, বাড়ির সবাই মনে করে, কেষ্ট, কেষ্টর বউ, কেষ্টর ছেলে, ছেলের বউ, এমন কি নাতি আর নাতনিও, যাদের কোলে-পিঠে করে মানুষ করলুম, মনে করে … বিস্তারিত পড়ুন

Posted in অতিবাস্তব-গল্প, অরৈখিক গল্প, উত্তর-আধুনিক রূপকথা, ছন্নছাড়া সময়, ছন্নছাড়া সময়ের গল্প, পোস্টমডার্ন-গল্প, স্যাটায়ার | এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান

আঁস্তাকুড়ের এলেকট্রা : একটি গল্পকাব্য — মলয় রায়চৌধুরী

আঁস্তাকুড়ের এলেকট্রা : একটি গল্পকাব্য রেজিস্ট্রেশানের সময় বানান ভুল করে ফেলেছিল ক্লার্ক নবীন খান্না, মুখে পান সত্ত্বেও পরশ্রীকাতর ফিকে হাসি,  ঠোঁটের কোনায় লালচে ফেনা, পেটের ভেতর কৃষ্ণচূড়া ছড়িয়ে চলেছে ফিনফিনে পাপড়ি, টাকের জেদি কয়েকটা চুল ফ্যাকাশে,  আলস্য দেখে মনে হয় … বিস্তারিত পড়ুন

Posted in অতিবাস্তব-গল্প, অরৈখিক গল্প, উত্তর-আধুনিক রূপকথা, ছন্নছাড়া সময়ের গল্প, Uncategorized | এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান

গহ্বরতীর্থের কুশীলব

খাজুরাহো মন্দিরের দেয়াল থেকে মাটিতে লাফাবার সময়, ঘুরঘুরে পোকার মুখে পাঠানো আদেশ তামিল করার জন্যে, বাতাসের মাঝপথে, নিজেকে পাষাণ মূর্তি থেকে রক্তমাংসের মানুষে পালটে নিয়েছিল কুশাশ্ব দেবনাথ নামে স্বাস্হ্যবান যুবকটি, যে কিনা হাজার বছরেরও বেশি চাণ্ডেলাবাড়ির একজন গতরি, ভারি-পাছা, ঢাউসবুক … বিস্তারিত পড়ুন

Posted in উত্তর-আধুনিক রূপকথা | Tagged | 2 টি মন্তব্য